• ২০২২ Jul ০৪, সোমবার, ১৪২৯ আষাঢ় ১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০১ পূর্বাহ্ন
  • বেটা ভার্সন
Logo
  • ২০২২ Jul ০৪, সোমবার, ১৪২৯ আষাঢ় ১৯

নোয়াখালীতে ফিরে গেলো সেই বিলকিস

  • প্রকাশিত ৩:৩৪ অপরাহ্ন মঙ্গলবার, মার্চ ২২, ২০২২
নোয়াখালীতে ফিরে গেলো সেই বিলকিস
ছবি-সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অবশেষে পরিবারের কাছে ফিরে গেলো কিশোরী আঁখি আক্তারকে বিয়ে করতে চাওয়া আরেক কিশোরী বিলকিস আক্তার।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়ন পরিষদে দুই পরিবারের অভিভাবকের কাছ থেকে লিখিত রেখে তাদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

এর আগে রোববার (২০ মার্চ) সন্ধ্যায় বিয়ে করতে নোয়াখালী থেকে টাঙ্গাইলে আঁখির বাড়িতে চলে আসে বিলকিস। বিষয়টি নিয়ে বাসাইল উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কিশোরীর পরিবার পড়ে বিপাকে।

বিলকিসের ভাই শরিফুল ইসলাম বলেন, রোববার বিকেলে ডিম কেনার কথা বলে সে বাড়ি থেকে বের হয়। ঘটনা শুনে আমার আব্বা-আম্মা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। ওকে বাড়িতে নিয়ে আমরা বিয়ের ব্যবস্থা করবো।

বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুল আলম বিজু বলেন, ইউএনও আমাকে বিষয়টি সমাধানের জন্য দায়িত্ব দিয়েছিলেন। পরে দুই কিশোরীর পরিবারের অভিভাবকের সঙ্গে বৈঠকে বসা হয়। সেখানে অভিভাবকদের মুচলেকা নিয়ে তাদের পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। দুই কিশোরী যাতে আর যোগাযোগ করতে না পারে সে বিষয়ে তাদের পরিবারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা পারভীন বলেন, নোয়াখালীর ইউএনওর সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই কিশোরীর পরিবারকে খুঁজে বের করা হয়। এরপর ফুলকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি নিয়ে সমাধানের জন্য বলা হয়েছে। তিনি মুচলেকা নিয়ে দুই কিশোরীকে তাদের অভিভাবকদের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

নোয়াখালী সদর উপজেলার বাসিন্দা বিলকিসের (১৭) সঙ্গে টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার বাসিন্দা আঁখির (১৫) প্রায় দুই বছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয়। সেই থেকেই ফেসবুক মেসেঞ্জারের মাধ্যমে নিয়মিত যোগাযোগ করতে থাকে তারা। এরই ধারাবাহিকতায় তাদের মধ্যে অস্বাভাবিক প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

রোববার (২০ মার্চ) সকালে তাদের দুজনের ফোনে কথা হয়। সন্ধ্যায় বিলকিস টাঙ্গাইল পৌর শহরে চলে আসে। পরে বাসাইল থেকে তাকে নিয়ে আসে আঁখি। ওই রাতেই তাদের অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চলে আলোচনা সমালোচনা। তাদের দেখতে ওই বাড়িতে দলে দলে লোকজন ভিড় জমান। দুই কিশোরীর বিয়ের সিদ্ধান্তে হতবাক হন স্বজনরা।

সর্বশেষ