• ২০২২ নভেম্বর ৩০, বুধবার, ১৪২৯ অগ্রহায়ণ ১৬
  • সর্বশেষ আপডেট : ১:৪৮ অপরাহ্ন
  • বেটা ভার্সন
Logo
  • ২০২২ নভেম্বর ৩০, বুধবার, ১৪২৯ অগ্রহায়ণ ১৬

ইমরান খানের মিছিলে পিষ্ট হয়ে নারী সাংবাদিক নিহত

  • প্রকাশিত ৪:০৫ অপরাহ্ন সোমবার, অক্টোবর ৩১, ২০২২
ইমরান খানের মিছিলে পিষ্ট হয়ে নারী সাংবাদিক নিহত
সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে একটি রাজনৈতিক মিছিল কভার করার সময় পাকিস্তানের নারী সাংবাদিক পিষ্ট হয়ে মারা গেছেন।

রবিবার একজন নারী সাংবাদিককে পিষ্ট করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন একজন সিনিয়র পুলিশ অফিসার।

কামুকের সহকারী সুপারিনটেনডেন্ট সালমান জাফর বলেন, লাহোরে চ্যানেল-৫-এর টেলিভিশন সাংবাদিক সাদাফ নাঈম খান (৩৬)  যে কন্টেইনার ট্রাকটিতে যাচ্ছিলেন তা থেকে পিছলে পিষ্ট হয়ে মারা যান।

মার্চের তৃতীয় দিনে খানের কাফেলা পাঞ্জাব প্রদেশের মধ্য দিয়ে ইসলামাবাদের দিকে যাচ্ছিল। বিক্ষোভকারীরা খানের উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ ও তার সরকারকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আগাম নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছিল। খানের কনভয় টিমের অনুশীলন ছিল খানের সঙ্গে কথা বলার জন্য ট্রাকের উপরে এক সময়ে কয়েকজন সাংবাদিককে আমন্ত্রণ জানানো।

খান এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘আজকে আমাদের মার্চের সময় চ্যানেল-৫ এর রিপোর্টার সাদাফ নাঈমের মৃত্যুতে যে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটেছে তাতে আমি মর্মাহত ও গভীরভাবে মর্মাহত। আমার দুঃখ প্রকাশ করার কোনো শব্দ নেই। এই দুঃখজনক সময়ে পরিবারের প্রতি আমার প্রার্থনা ও সমবেদনা রইল। আমরা আজকের জন্য আমাদের মার্চ বাতিল করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ নাঈমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি তার সমবেদনাও প্রকাশ করেছেন, তার আত্মীয়দের জন্য প্রায় ২০ হাজার ডলার অনুদান ঘোষণা করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী এক টুইট বার্তায় বলেন, লং মার্চের কন্টেইনার থেকে পড়ে সাংবাদিক সাদাফ নাঈমের মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত। ‘এই মর্মান্তিক ঘটনায় যথেষ্ট দুঃখ বোধ করতে পারি না। পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা। সাদাফ নাঈম একজন গতিশীল ও পরিশ্রমী রিপোর্টার ছিলেন। আমরা মৃতের পরিবারের জন্য ধৈর্যের জন্য প্রার্থনা করছি।’

নাঈম তার পরিবারের জন্য উপার্জনকারী ছিলেন এবং সাংবাদিক হিসাবে ১২ বছর ধরে কাজ করেছিলেন। পাকিস্তানি কর্মকর্তারা বলেছেন যে তারা তার ১৭ এবং ২১ বছর বয়সী দুই সন্তানের জীবনযাত্রার ব্যয় এবং শিক্ষার ব্যয় বহন করবে।

খানের প্রায় ১০ হাজার সমর্থকদের অনেকেই শত শত ট্রাক ও গাড়িতে করে শুক্রবার লাহোর থেকে রওনা হয়েছেন।

ইসলামাবাদে একটি উন্মুক্ত সমাবেশের মাধ্যমে এই বহরের যাত্রা মিলিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

যাতে নতুন প্রশাসনের কাছে একটি উল্লেখযোগ্য চ্যালেঞ্জ উপস্থাপন করতে পারে। পুলিশ খানের সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করতে গেলে সমাবেশটি সম্ভবত সহিংস রূপ নিতে পারে।


সর্বশেষ